1. smsitservice007gmail.com : admin :
সাভারে যমযম নুর সিটিতে রাজউকের উচ্ছেদ অভিযান - সতেজ বার্তা ২৪
শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ০৪:০৪ পূর্বাহ্ন
শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ০৪:০৪ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ভোলার লালমোহন উপজেলার ৭নং পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী তরুন মেধাবী যুবনেতা সাইফুল ইসলাম শাকিল তানোরে প্রবেশপত্র আটকে অর্থ আদায়ের অভিযোগ নারায়ণগঞ্জ চাষাড়ায় ফিল্ম স্টাইলে কুপিয়ে দানিয়াল নামের এক যুবককে হত্যা করলো দুর্বৃত্তরা..! তানোরে দোকানের সামনে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করে প্রতিবন্ধকতা ২০ বছর পাড় হয়নি ধর্ষন, মাদক সহ ২৪টি মামার আসামি ইয়াবা সুন্দরীর ছেলে কিশোর গ্যাং লিডার তানভীরের. রাজশাহীতে সংরক্ষিত আসনে এক ডজন নেত্রী আলোচনায় মর্জিনা  ‘বাড়িতে দেহব্যবসা’ তানোরে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার ভাই আটক তানোরে একশ’ বিঘা ফসলী জমি ধ্বংস করে পুকুর খনন রূপগঞ্জে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ মাছ লুটের অভিযোগে বিএনপি নেতা আাটক

সাভারে যমযম নুর সিটিতে রাজউকের উচ্ছেদ অভিযান

সাভার সংবাদদাতা:
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ১১৯ বার পঠিত

সাভারে জলাশয় ও খাল ভরাট করে দখল ও অবৈধ স্থাপনা তৈরি করার অভিযোগে যমযম নুর সিটি নামে এক হাউজিং কম্পানিতে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। এ সময় অভিযান পরিচালনা করতে গিয়ে হাউজিং প্রতিষ্ঠানের লোকজনের বাধা ও তোপের মুখে পড়েন রাজউক কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তারা। এক পর্যায়ে বাগবিতণ্ডা শুরু করে রাজউক কর্মকর্তাদের উপর চড়াও হন দখলদাররা। এ সময় উপস্থিত পুলিশ সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। সাভারের হেমায়েতপুরের যমযম নুর সিটি নামে হাউজিংয়ে এ অভিযান পরিচালনার নেতৃত্ব দেন রাজউকের জোন-৮ এর পরিচালক ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট (উপসচিব) মোহাম্মদ ইয়াহ ইয়া খান। এ সময় অভিযানে হাউজিং কোম্পানির অবৈধ স্থাপনা গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। জলাশয় ও খাল থেকে বালু সরিয়ে নিতে হাউজিং কম্পানিকে সময় বেঁধে দেন ম্যাজিস্ট্রেট। পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত সব ধরনের কর্মকাণ্ড স্থগিত ঘোষণা করেন রাজউকের ম্যাজিস্ট্রেট। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, অনুমোদনবিহীনভাবে এই হাউজিং কোম্পানিটি গড়ে ওঠে। তারা জলাশয় ও খাল দখল করে বালু দিয়ে ভরাট করে প্লট বিক্রি শুরু করেছে, যা আইনত অবৈধ এবং অপরাধ। আমরা আজ অবৈধ স্থাপনা গুঁড়িয়ে দিয়ে জলাশয় এবং খালের কিছু বালু সরিয়ে দিয়েছি। এ ছাড়া তাদের সময় দিয়েছি, যেন খাল ও জলাশয় থেকে বালু সরিয়ে নেয়। নির্দেশনা না মানলে রাজউক এই হাউজিং এর বিরুদ্ধে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করবে। রাজউকের উপনগর পরিকল্পনাবিদ মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন, অভিযানে গিয়ে হাউজিং প্রতিষ্ঠানের সংশ্লিষ্ট লোকজনের বাধার মুখে পড়ি। পুলিশের সহযোগিতায় পরিবেশ স্বাভাবিক হয়। পরে হাউজিং প্রতিষ্ঠানের মালিক হাফেজ নুর মোহাম্মদ কে পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা করা হয় এবং একই প্রকল্পে অনুমোদনবিহীন ভবন তৈরির অভিযোগে মাসুদ পারভেজ নামের আরো এক ব্যক্তিকে দুই লাখ টাকা আর্থিক জরিমানা করা হয়েছে। এ সময় রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ আবিল আয়ামসহ সংশ্লিষ্ট অফিসারগণ ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারি বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এ জাতীয় আরও খবর
Translate »