1. smsitservice007gmail.com : admin :
সাটুরিয়া সেটেলমেন্ট অফিসার বস্তা ভর্তি ঘুষের টাকা নিয়ে গেছে : অভিযোগ গোপালপুরবাসীর সতেজ বার্তা ২৪ সতেজ বার্তা ২৪
বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:৫৫ অপরাহ্ন
বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:৫৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ভোলার লালমোহন উপজেলার ৭নং পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী তরুন মেধাবী যুবনেতা সাইফুল ইসলাম শাকিল তানোরে প্রবেশপত্র আটকে অর্থ আদায়ের অভিযোগ নারায়ণগঞ্জ চাষাড়ায় ফিল্ম স্টাইলে কুপিয়ে দানিয়াল নামের এক যুবককে হত্যা করলো দুর্বৃত্তরা..! তানোরে দোকানের সামনে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করে প্রতিবন্ধকতা ২০ বছর পাড় হয়নি ধর্ষন, মাদক সহ ২৪টি মামার আসামি ইয়াবা সুন্দরীর ছেলে কিশোর গ্যাং লিডার তানভীরের. রাজশাহীতে সংরক্ষিত আসনে এক ডজন নেত্রী আলোচনায় মর্জিনা  ‘বাড়িতে দেহব্যবসা’ তানোরে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার ভাই আটক তানোরে একশ’ বিঘা ফসলী জমি ধ্বংস করে পুকুর খনন রূপগঞ্জে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ মাছ লুটের অভিযোগে বিএনপি নেতা আাটক

সাটুরিয়া সেটেলমেন্ট অফিসার বস্তা ভর্তি ঘুষের টাকা নিয়ে গেছে : অভিযোগ গোপালপুরবাসীর

মাহাবুব আলম তুষার
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৮ এপ্রিল, ২০২৩
  • ৯৭ বার পঠিত

মোঃ মাহাবুব আলম তুষার
স্টাফ রিপোর্টার:
মানিকগঞ্জ জেলার সাটুরিয়া থানা যা ঢাকা জেলার পাশে অবস্থিত, এ কারণে সাটুরিয়ার গুরুত্ব অন্যতম । সাটুরিয়া থানার সর্বপ্রথম দায়িত্ব পড়ে গোপালপুর ইউনিয়নের ভূমি জরিপের । এ দায়িত্বে যে সকল সেটেলমেন্ট অফিসারগণ নিয়োজিত ছিলেন । তাদের বিরুদ্ধে দিন শেষে ঘুষের টাকা ভর্তি বস্তা  নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ করেন গোপালপুর এলাকাবাসী । এমন অভিযোগের ভিত্তিতে ‘দৈনিক তালাশ টাইমসে’র অনুসন্ধানকারী গণ সেখান থেকে তথ্য নিয়ে জানান,
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি তালাশটাইমসের ক্যামেরা সামনে আসতেই দৌড়ে আসেন এবং বলেন, ” আমার ৮ শতাংশ জায়গা ছিল । যা পার্শ্ববর্তী মালিক আমার ৮শতাংশ জায়গাকে ২ লক্ষ টাকা ঘুষ দিয়ে তাদের নামে রেকর্ড করে দেয় ।
আমি এজন্য ‘মিস্ কেস্’ দিয়েছি । কিন্তু কোন সাড়া শব্দ নেই ।”
 পাশ থেকে অন্যান্য লোকেরা বলে উঠলেন, “দেয়ার পর আমাদের নোটিশ এসেছে এবং প্রতিটি নোটিশে ১ থেকে দেড় হাজার টাকা আমাদের থেকে নিয়ে নিয়েছে । প্রতি সপ্তাহে আমাদের হাজিরা আসে এবং আমাদের টাকা দিতে হয় ” ।
পাশ থেকে এক দোকানদার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তিনি বলেন, ” প্রত্যেক ধাপে ধাপে এরা টাকা চায়, টাকা না দিলে তারা কোন কথা কয় না । আমার অল্প কিছু জমি আছে যা রেকর্ড করাতে প্রায় ২,৫০,০০০ টাকা লেগেছে । শুধু তাই নয়, আমার আপন ভাই যে বিদেশে থাকে । সে টাকা বেশি দিয়ে নিজের নামে আমার থেকে বেশি জমি রেকর্ড করে নিয়েছে । আমার ভাই ঘুষ আদান-প্রদান করে আমাকে ঠকানোর কারণে ওকে আমি কঠিন অপরাধী মনে করি ” ।
পাশ থেকে আর একজন অভিযোগ করে বলেন, “পাশের দাগের জমির মালিক থেকে টাকা বেশি দিলেই দুই থেকে আড়াই ডিসিমিল জায়গা বাড়িয়ে দেয় ।”
স্থানীয় লোকদের অভিযোগের আর অন্ত নেই । কেউ হাউমাউ করে কেদে আসে ক্যামেরার সন্নিকটে ।
 এভাবে তারা ইউনিয়নের লোকেদের মাঝে শত শত প্যাচ বাজিয়ে নিরীহ ভূমির মালিক থেকে কোটি কোটি টাকা ঘুষ নিয়েছে এমন তথ্য দেন ।
তাদের পৈতৃক সম্পত্তি রক্ষার্থে নিজেদের সহায়-সম্বল গরু, ছাগল, বড় গাছ সব বিক্রি করে দিয়ে, ঘোষের টাকা সংগ্রহ করে তাদের জমি রক্ষা করেছেন, এমন ও অভিযোগ আছে ।
তথ্য নিয়ে জানা যায়, এ ভূমি রেকর্ড কার্যে যিনি নিয়োজিত ছিলেন, তিনি হলেন সেটেলমেন্ট অফিসার জনাব মকবুল সাহেব । এ বিষয়ে কথা বলতে সাটুরিয়া থানার সেটেলমেন্ট অফিসে কয়েকবার গেলেও তাকে অফিসে পাওয়া যায়নি । এবং মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা হলে তাকে লাইনে পাওয়া যায়নি ।
এ জাতীয় আরও খবর
Translate »