1. smsitservice007gmail.com : admin :
রাজশাহীর তানোরে খাস জায়গায় অট্রালিকা নির্মাণের অভিযোগ  - সতেজ বার্তা ২৪
বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৪:০৪ অপরাহ্ন
বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৪:০৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :

 রাজশাহী তানোরে থানা পুলিশের হাতে ভুয়া পুলিশ আটক হয়েছে    নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার গোলাকান্দাইল গোল চত্তর এলাকায় এশিয়ান হাইওয়ে সড়কের দীর্ঘদিনের ময়লা আবর্জনা অপসারণ করেছে হাইওয়ে পুলিশ।

রাজশাহীর তানোরে খাস জায়গায় অট্রালিকা নির্মাণের অভিযোগ 

তানোর(রাজশাহী)প্রতিনিধিঃ 
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ২ বার পঠিত

 

রাজশাহীর তানোর পৌরসভার কালীগঞ্জ হাট পালপাড়া মহল্লায় বিত্তশীল প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে সেতুর একাংশসহ খাস জায়গা জবরদখলের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় মহল্লাবাসীর মাঝে তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে। কিন্ত্ত প্রভাবশালীর মামলা-হামলার ভয়ে কেউ প্রকাশ্যে কোনো প্রতিবাদ করতে পারছেন না।

এদিকে গত ১৪ সেপ্টেম্বর বৃহস্প্রতিবার মহল্লাবাসি সরেজমিন তদন্তপুর্বক কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে ডাকযোগে স্থানীয় সাংসদ, রাজশাহী জেলা প্রশাসক (ডিসি), উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নেসকো তানোর আবাসিক প্রকৌশলীর কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগে বলা হয়েছে, তানোর পৌরসভার কালীগঞ্জহাট পালপাড়া মহল্লার বাসিন্দা মৃত সুধীর কর্মকারের পুত্র সঞ্জিৎ কর্মকার (তথ্য গোপণ) ভূয়া ভূমিহীন সেজে একখন্ড খাস জমি ইজারা নিয়েছেন। সেখানে তিনি প্রায় কোটি টাকা ব্যয়ে পাকা বাড়ী নির্মাণ করেছেন। এমনকি সেতুর একাংশসহ বাড়ির চার পাশে বিপুল পরিমাণ খাস জমি দখলে নিয়েছেন। মহল্লার ভূমিহীনেরা যখন মাথা গোঁজার জন্য একখন্ড খাস জায়গা পাচ্ছেন না। তখন বিত্তশীল সঞ্জিতের এমন দখলবাজি মহল্লাবাসির মাঝে তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে। অথচ এক বা দুই নম্বর খাস জমি ইজারায়  অগ্রাধিকার সমাজের ভূমিহীন ও হতদরিদ্রদের। তবে সঞ্জিৎ ভূমিহীন বা হতদরিদ্র নয়। তিনি নীতিমালা লঙ্ঘন ও পৌর প্ল্যান পাশ না করেই খাস জায়গায় আরসিসি পিলার দিয়ে অট্রালিকা নির্মাণ করেছেন।

স্থানীয় বাসিন্দা ভবেশ, নিরু, মিঠু, হিরা ও টুটুল বলেন, কালীগঞ্জহাটে হার্ডওয়ারের গুদাম ঘরে অবৈধ (এস,ডাব্লিউ,টি) সেচ মটর বসিয়ে বিঘা প্রতি ৪ হাজার টাকা করে সেচ চার্জ আদায় করছে সঞ্জিৎ। তারা বলেন, খাস জমি তার মতো বিত্তবানকে না দিয়ে, বিত্তহীন বা ভুমিহীনদের দেয়া হলে মহল্লার আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে আরো বড় ভুমিকা রাখতো। এবিষয়ে জানতে চাইলে সঞ্জিৎ কর্মকার এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, জমিদারি খাস জমি ইজারা নিয়ে বাড়ি করা হয়েছে। তিনি বলেন, সেচ কমিটির অনুমোদন নিয়ে তিনি সেচ মটর বসিয়েছেন। এবিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) আবিদা সিফাত বলেন, লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।#

এ জাতীয় আরও খবর
Translate »