1. smsitservice007gmail.com : admin :
এখনো অজানা রহস্য হয়েই আছে শেখ রাসেল পার্ক। জিমখানা অংশের মালিক কে..? - সতেজ বার্তা ২৪
শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:১৯ অপরাহ্ন
শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:১৯ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
দেবোত্তর সম্পত্তি আত্মসাৎ ও শিব লিঙ্গ বিক্রির অভিযোগ ছাত্রলীগের সভাপতি আতিকের ডিগবাজি না’কি বিদ্রোহ? সাভারে মাদকের সয়লব , এক নজরে মাদক গ্যাং রাজশাহী আওয়ামী  প্রকাশ্যে বিভক্তির আভাস দায়ী কে ? তানোরে ৩টি পাকা রাস্তা নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ভোলার লালমোহন উপজেলার ৭নং পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী তরুন মেধাবী যুবনেতা সাইফুল ইসলাম শাকিল তানোরে প্রবেশপত্র আটকে অর্থ আদায়ের অভিযোগ নারায়ণগঞ্জ চাষাড়ায় ফিল্ম স্টাইলে কুপিয়ে দানিয়াল নামের এক যুবককে হত্যা করলো দুর্বৃত্তরা..! তানোরে দোকানের সামনে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করে প্রতিবন্ধকতা ২০ বছর পাড় হয়নি ধর্ষন, মাদক সহ ২৪টি মামার আসামি ইয়াবা সুন্দরীর ছেলে কিশোর গ্যাং লিডার তানভীরের.

এখনো অজানা রহস্য হয়েই আছে শেখ রাসেল পার্ক। জিমখানা অংশের মালিক কে..?

মোঃ মিঠু আহম্মেদ :-
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৯৩ বার পঠিত

নারায়ণগঞ্জ শহরের প্রানকেন্দ্রে নির্মান করা নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেগা প্রকল্প শেখ রাসেল পার্ক। এই দৃষ্টি নন্দন পার্ক টি নির্মানের কাজ শুরু করেন ২০১৮ সালে। এই পার্ক নির্মানের জন্য সর্বমোট খরচ হয় ৫৭কোটি ৬৭লাখ টাকা। শেখ রাসেল পার্ক মুলত দুই ভাগে বিভক্ত করে নির্মান হয়। এর মূল অংশ দেওভোগ এলাকায় এবং বাকীটা নারায়ণগঞ্জের বাবুরাইল ও জীমখানা অংশ নিয়ে।
এই পার্ক নিয়ে যেমন আছে প্রশংসা ঠিক তেমনই আছে পার্ক নিয়ে নিন্দা। নারায়ণগঞ্জ শহরবাসী এখনো জানেন না যে শেখ রাসেল পার্ক নির্মান হলো কার জায়গায়। মুলত সবাই ভাবে যে এটি একটি সরকারি জায়গায় নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নির্মান করা মেগা প্রকল্প। কিন্তূ নগরবাসী কে সঠিকভাবে রাসেল পার্কের ভেতরের অজানা রহস্য তুলে ধরার জন্য যখন অনুসন্ধান করা হয় তখন বেরিয়ে আসে একের পর এক মেয়র আইভী কে নিয়ে নানা রহস্যময় সত্য যা রীতিমতো নারায়ণগঞ্জ শহর বাসি দের সঙ্গে প্রতারনাই করেছেন বলা চলে মেয়র আইভীর।

উল্লেখ্য যে বেশ সকলের কাছে পরিচিত ছিলো নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের পাশেই জীমখানা এটি বাংলাদেশ রেলওয়ের নিজস্ব সম্পত্তি। কেও কেও আবার ভাবতেন এটি সরকারি জায়গায় গৃহহীনদের তৈরীকরা বস্তি। কিন্তূ অনুসন্ধানে উঠে আসে যে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের পাশেই জীমখানা রেলওয়ে স্টাফ কোয়ার্টার এলাকার জায়গা নিয়ে বাংলাদেশ রেলওয়ের সঙ্গে জিমখানা অংশের সি.এস ১২৫৯ দাগের ১একর ৫০শতাংশের মালিক আলীআকবর নামক এক ব্যাক্তির সঙ্গে মহামান্য আদালতে একটি মামলা চলোমান ছিলো এবং পর্বতীতে বাংলাদেশ রেলওয়ে এই মামলা থেকে মুচলেকা দিয়ে নিজেদের করা মামলা থেকে চলে যায়। কিন্তূ এই সকল বিষয় সঠিক তদন্তের মাধ্যমে খোঁজ খবর না নিয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র আইভী সরকারের অর্থ নষ্ট করে কেনো এতো বড় একটি মেগা প্রকল্প শুরু করে। এ ঘটনার বিষয়ে নিশ্চিত হয়ওার জন্য শেখ রাসেল পার্ক জীমখানা অংশের মালিক দ্বাবিকরা আলিআকবরের সঙ্গে যোগাযোগ করতে গেলে জানা যায় আলিআকবর ২০০৯সালে মৃত্যু বরন করে। এবং বর্তমানে তার জায়গার মামলা তার পরিবারের সদস্য রা চালাচ্ছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেওয়ের সঙ্গে। আলি আকবর মৃত্যুর পর পর নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র তরিঘরি করে বাংলাদেশ সরকারের কোনো প্রকার প্রমান না নিয়ে একটি উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে কিন্তূ এতে মেয়র আইভী কিছুই করে উটতে পারেনি। এরপর মেয়র একের পর এক চেষ্টা করে এই সম্পত্তি দখল করার জন্য কিন্তূ কোনো ভাবেই না পেরে সর্বশেষ ২০১৯সালে নিজের পেশি শক্তি দিয়ে মহামান্য আদালত কে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে জোর পূর্বক একটি উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে নিরীহ আলি আকবরের রেখে যাওয়া ছেলেমেয়েদের গৃহহীন করে। এই উচ্ছেদ অভিযানের জন্য মৃত্যু আলি আকবরের ছেলে মোঃ শহীদুল মহামান্য আদালতে একটি খতিপুরন দ্বাবিকরে মামলা দায়ের করে। মামলায় মহামান্য আদালতের বিচারক নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র আইভী কে উদ্দেশ্য করে বলেন কেনো তিনি সেই জায়গা সম্মন্ধে কোনো প্রকার খোজ খবর না নিয়ে অভিযান পরিচালনা করে। এবং ৬ কোটি টাকা খতি করেন মর্মে রুল জারি করে। এবং সকল বিষয় সঠিক তদন্তের জন্য এবং কেনো মালিকানা জায়গায় সরকারে অর্থ নষ্ট করে মেগা প্রকল্পের কাজ করছেন তার কারন জানানোর নির্দেশ প্রধান করে। বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র এই মামলায় একটিও সঠিক মন্তব্য দিতে পারেনি প্রতি হাজিরার ডেটে সময় আবেদন করে পিটিশন করেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন।
এখন মূল কথা যেই জায়গা নিয়ে মহামান্য আদালতে মামলা চলমান সেই জায়গায় সরকারের অর্থ নষ্ট করে কেনো এতো বড় একটি প্রকল্পের কাজ করছেন মেয়র আইভী যে জায়গার মালিক বাংলাদেশ সরকার কিংবা নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন না সেখানে কেনো এতো অর্থ নষ্ট তবে এটা কি মেয়র আইভী জনগণের সঙ্গে ও একই সঙ্গে সরকারের অর্থ নষ্ট করে সরকারের সঙ্গে বেইমানি করা হয়েছে বলে প্রমানিত হয় না।

এই বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র আইভীর সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে সে এখন এই সকল বিষয়ে কোনো প্রকার কথা বলতে পারবেনা বলে দেন।

এ জাতীয় আরও খবর
Translate »