1. smsitservice007gmail.com : admin :
আসল পুলিশের হাতে ভুয়া পুলিশ আটক  - সতেজ বার্তা ২৪
শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০১:১৩ পূর্বাহ্ন
শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০১:১৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সিরাজগঞ্জে সাংবাদিকদের ওপর হামলা দেবোত্তর সম্পত্তি আত্মসাৎ ও শিব লিঙ্গ বিক্রির অভিযোগ ছাত্রলীগের সভাপতি আতিকের ডিগবাজি না’কি বিদ্রোহ? সাভারে মাদকের সয়লব , এক নজরে মাদক গ্যাং রাজশাহী আওয়ামী  প্রকাশ্যে বিভক্তির আভাস দায়ী কে ? তানোরে ৩টি পাকা রাস্তা নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ভোলার লালমোহন উপজেলার ৭নং পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী তরুন মেধাবী যুবনেতা সাইফুল ইসলাম শাকিল তানোরে প্রবেশপত্র আটকে অর্থ আদায়ের অভিযোগ নারায়ণগঞ্জ চাষাড়ায় ফিল্ম স্টাইলে কুপিয়ে দানিয়াল নামের এক যুবককে হত্যা করলো দুর্বৃত্তরা..! তানোরে দোকানের সামনে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করে প্রতিবন্ধকতা

আসল পুলিশের হাতে ভুয়া পুলিশ আটক 

আলিফ হোসেন,তানোর,রাজশাহী
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ১৮৭ বার পঠিত

 

রাজশাহী তানোরে থানা পুলিশের হাতে ভুয়া পুলিশ আটক হয়েছে।আটককৃতরা হলো রাকিব হোসেন (৩০) তিনি তানোর পৌরসভার মাসিন্দা মহল্লার আসাদুল ইসলামের পুত্র, তৌহিদুল ইসলাম (২৫) তিনি তালন্দ ইউপির আড়াদীঘি গ্রামের তোফাজ্জল হোসেনের পুত্র  ও মুন্না সরকার (২৩) তিনি তালন্দ ইউপির দেবীপুর গ্রামের মহাসিন আলীর পুত্র। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যর সৃষ্টি হয়েছে। জানা গেছে, উপজেলার বাধাইড় ইউনিয়নের (ইউপি) শিকপুর দিয়ারাপড়া থেকে পুলিশ ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের অডিট কর্মকর্তা পরিচয়ে চাঁদাবাজি করার সময় নকল হাতকড়াসহ তাদের আটক করা হয়েছে। এদিন মুন্ডুমালা পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের একটি টিম মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করছিলেন। এ সময় তারা জানতে পারেন বাধাইড় ইউপির শিকপুর দিয়ারাপাড়ায় ৩ জন ব্যক্তি পুলিশ পরিচয় দিয়ে চাঁদা উত্তোলন করছেন।

বিষয়টি তানোর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রহিমকে অবগত করেন এবং তার  নির্দেশনায় এসআই মোজাহারুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনা স্থলে অভিযান দিযে নকল হাতকড়াসহ তিনজন ভূয়া পুলিশকে আটক করেছেন। এসময় আটককৃতদের দেহ তল্লাশী করে চাঁদাবাজির টাকা, নকল হাতকড়া,

উপজেলা মহিলা বিষয়ক অডিট কর্মকর্তার ভুয়া আইডি কার্ড এবং তিন চাকার সবুজ রং এর টিভিএস কোম্পানির সিএনজি জব্দ করা হয়।

জব্দকৃত আলামত তানোর থানা  হেফাজতে নিয়ে আসামীদের বিরুদ্ধে পেনাল কোড ১৮৬০/আইনের ১৭০/১৭১/৩৮৫/৩৮৬ ধারায় মামলা  করা হয়।#

এ জাতীয় আরও খবর
Translate »