1. smsitservice007gmail.com : admin :
চাঁদা না দেওয়ায় দোকান ঘর ভাংচুর ও ছিনতাই অভিযোগ উঠেছে চেয়ারম্যান এর বিরুদ্ধে - সতেজ বার্তা ২৪
সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১১:০৯ অপরাহ্ন
সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১১:০৯ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :

ইয়ামাহা রাইডার্স ক্লাব-সাভার আয়োজন করলো "এক দিনের স্কুল"    

চাঁদা না দেওয়ায় দোকান ঘর ভাংচুর ও ছিনতাই অভিযোগ উঠেছে চেয়ারম্যান এর বিরুদ্ধে

মাজাহারুল ইসলাম মামুন,  লালমনিরহাট প্রতিনিধি :
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ৬ আগস্ট, ২০২৩
  • ৮ বার পঠিত

লালমনিরহাট জেলার হাতীবান্ধা উপজেলায় হঠাৎ করেই গোতামারী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও তার বাহিনী সন্ত্রাসী স্টাইলে দীর্ঘ ২৫ বছরের নির্মাণকৃত দোকান ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়েছে ও দোকান লুটপাট করেছেন সন্ত্রাসীরা। শুধু দোকান গুড়িয়ে দেওয়াতেই শেষ নয় দোকানের জায়গা দ্রুত না ছাড়লে জীবনের মতো শেষ করে দেবারও হুমকি দেওয়া হয়েছে।

 

গত শুক্রবার (৩ জুলাই) হাতীবান্ধা উপজেলার গোতামারী ইউনিয়নের দইখাওয়া বাজারের ব্যবসায়ী আঃ গফ্ফার আলী দোকানদারের উপর এই হামলা চালায় উক্ত ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও তার কেডার বাহিনী।

 

এই ঘটনায় হাতিবান্ধা থানায় একটি এজা্হার দায়ের করেছে ভূক্তভোগী।

 

লিখিত এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গফ্ফার (৪৩) দইখাওয়া হাটে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের দক্ষিণ পাশে টিন সেটের দোকানে দীর্ঘদিন থেকে একটি হার্ডওয়্যার দোকান ঘর তৈরী করে সংসার চালিয়ে আসছে, ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোনাব্বেরুল হক মোনা ও তার ক্যাডার সন্ত্রাসী বাহিনী । হাটের জায়গায় পুরাতন দোকান ঘরের জায়গায় নতুন করে ঘড় সংস্করণ করতে গেলে চেয়ারম্যান ও তার ক্যাডার বাহিনী চাঁদা দাবি করে এবং চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে একক ক্ষমতা দেখিয়ে কাজ বন্ধ করে দেয়। চেয়ারম্যান ১ জন ইউ পি সদস্য মারফত ১ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে অস্বীকার করে উক্ত যায়গায় দোকান মালিক দোকান ঘর নির্মাণ করলে চেয়ারম্যান ও তার বাহিনী সন্ধ্যা ৭.০০ ঘটিকায় উক্ত দোকানের উপর হামলা চালায় এবং দোকান লুটপাট করে ২ লক্ষ টাকা ও প্রায় দোকানের হার্ডওয়্যার মালামাল বাবদ ১০ লক্ষ টাকার নিয়ে যায় ও ভাংচুর এ ১০ হাজার টাকা ক্ষতি সাধান হয়

 

 

এ বিষয়ে অভিযোগকারী আব্দুল গফফার জানান, দীর্ঘ ২৫ বছর হতে আমি সরকারি জায়গাতে দোকান দিয়ে সংসার চালাচ্ছি। আমার দোকান ঘরটি সংস্কার করতে গেলে চেয়ারম্যান আমার কাছে ১ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করায় আমি চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে হঠাৎ করেই তারা আমার দোকান ঘর ভাংচুর ও লুটপাট চলে যায়। আমি আইন ও প্রশাসনের কাছে এর সুষ্ঠ বিচার চাই।

 

এই বিষয় গোতামারী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোনাব্বেররুল হোসেন (মোনার) সাথে কথা বললে তিনি জানান চৌকিদার দিয়ে কাজ বন্ধ করেছিলাম মিস্ত্রীর অস্ত্রপাতি নিয়ে আসি পরে ফেরত দেই কারণ চেয়ারম্যান হাটবাজার কমিটিতে সভাপতি তিনি হাটের ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করতে পরে।

 

এই বিষয়ে হাতিবান্ধা থানার অফিসার্স ইনচার্জ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে । সময় মতো প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ জাতীয় আরও খবর
Translate »