1. smsitservice007gmail.com : admin :
মানিকগঞ্জে সিদ্দিকীয়া হাসপাতালের ছত্রছায়ায় অপারেশন করছে- জাহাঙ্গীর - সতেজ বার্তা ২৪
শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:৪২ অপরাহ্ন
শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:৪২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
দেবোত্তর সম্পত্তি আত্মসাৎ ও শিব লিঙ্গ বিক্রির অভিযোগ ছাত্রলীগের সভাপতি আতিকের ডিগবাজি না’কি বিদ্রোহ? সাভারে মাদকের সয়লব , এক নজরে মাদক গ্যাং রাজশাহী আওয়ামী  প্রকাশ্যে বিভক্তির আভাস দায়ী কে ? তানোরে ৩টি পাকা রাস্তা নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ভোলার লালমোহন উপজেলার ৭নং পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী তরুন মেধাবী যুবনেতা সাইফুল ইসলাম শাকিল তানোরে প্রবেশপত্র আটকে অর্থ আদায়ের অভিযোগ নারায়ণগঞ্জ চাষাড়ায় ফিল্ম স্টাইলে কুপিয়ে দানিয়াল নামের এক যুবককে হত্যা করলো দুর্বৃত্তরা..! তানোরে দোকানের সামনে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করে প্রতিবন্ধকতা ২০ বছর পাড় হয়নি ধর্ষন, মাদক সহ ২৪টি মামার আসামি ইয়াবা সুন্দরীর ছেলে কিশোর গ্যাং লিডার তানভীরের.

মানিকগঞ্জে সিদ্দিকীয়া হাসপাতালের ছত্রছায়ায় অপারেশন করছে- জাহাঙ্গীর

মাহবুব আলম তুষার
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২৭ জুন, ২০২৩
  • ৬৭ বার পঠিত

 

মানিকগঞ্জে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও ডাক্তারের যোগসাজশে জটিল কঠিন অপারেশন করে বেড়াচ্ছে ওটিবয় জাহাঙ্গীর জয় নামের এক প্রতারক। এসব অপারেশন শেষে ছাড়পত্র ও রেজিস্টারে ব্যবহার করা হচ্ছে সরকারি হাসপাতালের সার্জারি ডাক্তার আরিফের নাম এবং সিগনেচার।

 

জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে এক শ্রেণীর অসাধু ডাক্তার ও হাসপাতাল ব্যবসায়ীদের ছত্রছায়ায় চিকিৎসার নামে প্রতারণা করে যাচ্ছে জাহাঙ্গীর। দালাল দিয়ে গ্রামের সহজ সরল রোগীদের অল্প টাকায় ভালো চিকিৎসা ও অপারেশনের নামে মানুষের জীবন নিয়ে ভয়ংকর খেলায় মেতে উঠেছে সে।

 

ভুক্তভোগী বাদল মিয়া জানান গত ১৭ জুন সকালে কর্ণেল মালেক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের ডাক্তার মুস্তাফিজুর রহমানের কাছে আমার ঘাড়ের টিউমার দেখাতে যাই। তিনি আমাকে দেখে কিছু পরিক্ষা নিরিক্ষা দেন এবং সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করে অপারেশন করে দিতে চান। তবে আমার সমস্যা তীব্র হওয়ায় আমি খুব দ্রুত অপারেশন হতে চাই। ডাক্তার বলেন বেসরকারী হাসপাতালে গেলে অজ্ঞান করে হাসপাতাল এবং ওষুধসহ ১৪/১৫ হাজার টাকা খরচ লাগবে। এরপর ১৯ জুন পূর্ব পরিচিত মিজান নামের এক লোক আমাকে কম খরচে বড় ডাক্তার দিয়ে আজকেই অপারেশন করার জন্য বাসস্ট্যাণ্ড এলাকায় হাজী ছবেদ সুপার মার্কেটের ৩য় তলায় অবস্থিত সিদ্দিকীয়া হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে নিয়ে যায়। সেখানকার লোকজন সার্জারি ডাক্তার আরিফকে দিয়ে অপারেশ করে দেবে বলে আমার সাথে ৩৫০০ টাকা চুক্তি করে। সেদিনই বিকেল সাড়ে ৩টার সময় আমাকে স্যালাইন দিয়ে অপারেশন রুমে নিয়ে যায়। অপারেশন করার সময় আমাকে অজ্ঞান না করে শুধু আমার ঘাড়ে ইঞ্জেকশন দিয়ে অপারেশন শুরু করে । অপারেশনের সময় তীব্র ব্যাথা অনুভব হলে সে ডাক্তার আমার ঘাড়ে একে একে ৪টি ইঞ্জেকশন দেয়। অপারেশন শেষে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে ডাক্তারের ভিজিটিং কার্ড চাইলে তারা কেউ-ই আমাকে ভিজিটিং কার্ড দিতে রাজি হয়নি। বিষয়টি আমার কাছে সন্দেহ হয়। পরে ডাক্তারের বিষয়ে খোঁজ নিয়ে জানতে পারি আমি প্রতারণার শিকার হয়েছি। অপারেশন করেছে সিদ্দিকীয়া হাসপাতালের ওটিবয় জাহাঙ্গীর। বিভিন্ন জনের কাছে এ বিষয়ে কথা বলে জানতে পারি সিদ্দিকীয়া হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের যোগসাজশে জাহাঙ্গীর এভাবেই অপারেশন করে বেড়ায়। আমার ছাড়পত্রে সার্জন আরিফ ডাক্তারের নাম থাকলেও সে অপারেশন করে নাই, এমনকি তার সিগনেচারটিও ভূয়া। বর্তমানে আমার ঘাড়ে প্রচণ্ড ব্যাথা করছে। আমি প্রতারণার শিকার হয়েছি ওটিবয় জাহাঙ্গীর এবং সিদ্দিকীয়া হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিচার চাই।

 

এ বিষয়ে জাহাঙ্গীর বলেন, আরিফ ডাক্তার আসতে দেড়ি করায় এক সহযোগী নিয়ে আমি নিজেই অপারেশনটি করেছি।

 

সিদ্দিকীয়া হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. লুৎফর রহমানের কাছে ওটিবয় জাহাঙ্গীর ও ডাক্তার আরিফের নাম সিগনেচার নকল করার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন এ বিষয়ে আমি কিছু বলতে পারবো না।

 

মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের সার্জারি ডাক্তার মো. আরিফুর রহমান বলেন, বাদল নামের ওই রোগীর অপারেশন আমি করিনি। আমার নাম ও সিগনেচার ব্যবহার করে এ অপকর্ম যারা করেছে তাদের বিরুদ্ধে আইনের আশ্রয় নেব।

 

মানিকগঞ্জ ক্লিনিক এন্ড প্যাথলজি ওনার্স এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হান্নান বলেন, সিদ্দিকীয়া কর্তৃপক্ষ যে কাজটি করেছে তা জঘন্য অন্যায়। ওটিবয় জাহাঙ্গীরকে দিয়ে অপারেশন করিয়ে অন্য ডাক্তারের নাম সিগনেচার ব্যবহার করে তারা মূলত প্রতারণা করেছে। এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে আমি এ ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ করছি।

 

এ বিষয়ে মানিকগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মোয়াজ্জেম আলী খান চৌধুরী বলেন, চিকিৎসার নামে যারা প্রতারণা করবে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ জাতীয় আরও খবর
Translate »