1. smsitservice007gmail.com : admin :
মানিকগঞ্জে বিভিন্ন সমিতির নাম ভাঙ্গিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ - সতেজ বার্তা ২৪
শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:৪২ অপরাহ্ন
শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:৪২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
দেবোত্তর সম্পত্তি আত্মসাৎ ও শিব লিঙ্গ বিক্রির অভিযোগ ছাত্রলীগের সভাপতি আতিকের ডিগবাজি না’কি বিদ্রোহ? সাভারে মাদকের সয়লব , এক নজরে মাদক গ্যাং রাজশাহী আওয়ামী  প্রকাশ্যে বিভক্তির আভাস দায়ী কে ? তানোরে ৩টি পাকা রাস্তা নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ভোলার লালমোহন উপজেলার ৭নং পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী তরুন মেধাবী যুবনেতা সাইফুল ইসলাম শাকিল তানোরে প্রবেশপত্র আটকে অর্থ আদায়ের অভিযোগ নারায়ণগঞ্জ চাষাড়ায় ফিল্ম স্টাইলে কুপিয়ে দানিয়াল নামের এক যুবককে হত্যা করলো দুর্বৃত্তরা..! তানোরে দোকানের সামনে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করে প্রতিবন্ধকতা ২০ বছর পাড় হয়নি ধর্ষন, মাদক সহ ২৪টি মামার আসামি ইয়াবা সুন্দরীর ছেলে কিশোর গ্যাং লিডার তানভীরের.

মানিকগঞ্জে বিভিন্ন সমিতির নাম ভাঙ্গিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ

মাহাবুব আলম তুষার
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৮ মে, ২০২৩
  • ৮৬ বার পঠিত

মানিকগঞ্জে বিভিন্ন সমিতির নাম ভাঙ্গিয়ে সাধারণ লোকদের থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ ।

মানিকগঞ্জের সিংগাইর থানার বায়রা ইউনিয়ন থেকে প্রায় ২০ লক্ষ টাকা উত্তোলন করে উধাও হয়েছে এক প্রতারক চক্র ।

এমন অভিযোগের ভিত্তিতে সাংবাদিকদের অনুসন্ধানকারী দল তথ্য নিয়ে জানতে পারে ,

আলিনগর গ্রামের হোসেন আলীর ছেলে মোহাম্মদ সিদ্দিক মিয়া, যিনি একজন গরুর ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত । তার থেকে ৩০,২০০ টাকা ।

একই গ্রামের আসোক আলীর ছেলে আখতার হোসেন থেকে ২০’২০০ টাকা।

সকেল শিকদারের ছেলে মোঃ আমজাদ শিকদার থেকে ৩০,২০০ টাকা ।

মোহাম্মদ ওসমান মিয়ার স্ত্রী সাহেরা বেগম থেকে ২০,২০০ টাকা এবং এলাকার বিভিন্ন লোক থেকে এভাবে টাকা নিয়ে উধাও হয়েছে ।

তথ্য নিয়ে জানা যায়, বাইমেল স্ট্যান্ড এর পাশে আতাল হকের বাড়িতে স্থানীয় মার্কেট থেকে বাকিতে মালামাল নিয়ে একটি অফিস তৈরি করে । অল্প কয়েকদিনের মধ্যে স্থানীয় সরলমনা লোকদের ঋণদানে আকৃষ্ট করে । গত সোমবার ঋণ দিবে বলে সকলের থেকে এভাবে টাকা উত্তোলন করে । গত রবিবার পর্যন্ত আনুমানিক ২০ লক্ষ টাকা লোকদের থেকে উত্তোলন করে দুপুরের মধ্যে তারা উধাও হয়ে চলে যায় ।

ভুক্তভোগীরা বলেন, ” আমাদের আকৃষ্ট করতে তারা এন.আই.ডি কার্ড সহ অগ্রণী ব্যাংকের ব্ল্যাংক চেক রেখে গেছে ।

আমরা ঋণ পাব ভেবে তাদেরকে সঞ্চয় বাবদ টাকাগুলো জমা দেই । কিন্তু দুপুরে অফিসে গিয়ে দেখি তালা । এরপর থেকে তাদের কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি । আইডি কার্ড অনুসারে অফিসারের নাম এস এম আকরামুজ্জামান, পিতা মোসলেম উদ্দিন শেখ, গ্রাম ঝুংগুরদি, নগরকান্দা, ফরিদপুর ।

এবং তারা যে মোবাইল নাম্বারটি দিয়েছিল তা এখন সুইচ অফ পাওয়া যাচ্ছে । আমরা নিরীহ লোক । কোথায় কি করব জানিনা । আমরা সরকারের কাছে বিচার চাই । যেন, অতিসত্বর ওই প্রতারক চক্র কে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হয়” ।

এ জাতীয় আরও খবর
Translate »