1. admin@sotejbarta24.com : admin : Rj Shamim
বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০৭:২৫ অপরাহ্ন
সর্বশেষ:
ঢাকা আরিচা মহা সড়কের বাথুলীতে সেলফী ও ট্রাকের সংর্ঘষ ; নিহত ৫ , আহত অনেকজন ॥

নরসিংদীর রায়পুরায় বাস-মাইক্রোবাস সংঘর্ষ: নিহত তিনজনের পরিচয় মিলেছে

পারভেজ মোশারফ, রায়পুরা
  • আপডেট সময়: সোমবার, ২১ মার্চ, ২০২২
  • ১৬ বার পঠিত
নরসিংদীর রায়পুরায় বাস-মাইক্রোবাস মুখোমুখি সংঘর্ষে চালকসহ নিহত হওয়া তিনজনের পরিচয় জানা গেছে। বৃহস্পতিবার (১৭ মার্চ) ভোর ৪ টার দিকে উপজেলার ভিটি মরজালে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে।
নিহতর হলেন- মাইক্রোবাসটির চালক পাবনার আমিনপুর উপজেলার গোবিন্দপুর এলাকার মৃত মুজিবুর রহমান প্রামাণিকের ছেলে আবুল কালাম আজাদ (৫০), তার সহকারি পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার বতোলা এলাকার মৃত আব্দুল মান্নানের ছেলে ইউনুছ (৫৫) ও যাত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার নরহা এলাকার মৃত আবুল কাশেমের ছেলে আবুল হোসেন (৫০)।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ভোরে সিলেট থেকে ছেড়ে আসা ইউনিক পরিবহনের (ঢাকা মেট্রো-ব-১৫-২৪১৭) একটি বাস ও সিলেটগামী সংবাদপত্রবাহী মাইক্রোবাসটি (ঢাকা মেট্রো-চ-১১-৮৫৯৭) ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ভিটিমরজালে পৌঁছালে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মাইক্রোবাসটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। ঘটনাস্থলে মাইক্রোবাসের চালক আজাদ, তার সহকারী ইউনুছ ও যাত্রী আবুল মারা যান। পরে স্থানীয়রা ভৈরব হাইওয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ গিয়ে নিহত তিনজনসহ বাস ও মাইক্রোবাসটি জব্দ করে থানা নিয়ে আসেন। ওই ঘটনার পর ইউনিক পরিবহনের চালক ও সহকারি পালিয়ে যায় বলে জানা গেছে।
নিহত চালক আজাদের ভাগ্নে রবিউল ইসলাম জানান, তার মামা ছিলেন পরিবারে একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি। দুই সন্তানের মধ্যে এক মেয়ে এবার ভার্সিটি পরীক্ষা দিবে এবং এক ছেলে অষ্টম শ্রেণীতে পড়ে। তাঁর এমন মৃত্যু কিছুতেই স্বজনরা মেনে নিতে পারছেন না। সকল আনুষ্ঠানিকতা শেষে মামার লাশ নিয়ে পাবনার গোবিন্দপুরে উদ্দেশে রওনা দিবেন বলে জানান তিনি।
নিহত আবুলের ভাই মো. মিজানুর রহমান জানান, ঢাকার বংশালে ব্যাগের ব্যবসা করতেন আবুল। তাঁর গ্রামের বাড়ির ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নরহায় হলেও স্ত্রী ও দুই সন্তান সিলেটে বসবাস করত। সেই সুবাধে তিনি পূর্বপরিচিত চালক আজাদের সঙ্গে মাইক্রোবাসে করে সিলেটে পরিবারে কাছে যাচ্ছিলেন। মাইক্রোবাসটি নরসিংদীর ভিটিমরজালে পৌঁছালে দুর্ঘটনায় আবুলের মৃত্যু হয়।
তিনি আরো বলেন, মরদেহটি বিনা ময়না তদন্তে দাফনের জন্য নরসিংদী অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছ আবেদন করেছি।
ভৈরব হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খালেদ মাহমুদ খান জানান, নিহত তিনজনের স্বজনদের আবেদরে প্রেক্ষিতে বিনা ময়না তদন্তে লাশ হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে। এ ঘটনায় বাসটি জব্দ করা হয়েছে। বাসের চালক ও সহকারি ঘটনার পর থেকেই পলাতক আছেন বলে জানান তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও খবর...
English version»