1. admin@sotejbarta24.com : admin :
মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০২:০২ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ:
কাতারের মসজিদগুলিতে আরোপিত বিধিনিষেধ প্রত্যাহার
সংবাদ শিরোনাম:
কাতারে স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে কোভিক-১৯ ভ্যাকসিনেশন সেন্টার কাতারের শুরা কাউন্সিল নির্বাচনে প্রথমবারের মতো সরাসরি নিয়োগ ফিলিস্তিনিদের সহায়তায় ৫০০ মিলিয়ন ডলার দেওয়া অব্যহৃত রেখেছে কাতার সরকার সাত মাস ধরে বেতন পাচ্ছেন না সারাদেশে নোকিয়া মার্কেট এক্সপ্রেসে’র এর কর্মীরা। অলিপুরা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনী মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ছিনতাইকারী ও রিক্সা উদ্ধার কাতারে QID সংক্রান্ত অবৈধ প্রবাসীদের বৈধ হওয়ার বিভিন্ন সুযোগ সুবিধার সুখবর ঘোষনা দিল কাতার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কাতারে গতবছরের তুলনায় বহুগুণে বেড়ে চলেছে পর্যটকের সংখ্যা ফিফা ফুটবল কোর্টের বিরোধ নিষ্পত্তি কমিটির সদস্য রায়পুরায় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন দিবস ২০২১ পালিত

 119 total views,  55 views today

সাভারের থানাষ্ট্যান্ডে যাত্রীবাহী বাস ও প্রাইভেটকার সংঘর্ষ॥

সাভার প্রতিনিধি
  • আপডেট সময়: রবিবার, ৩ অক্টোবর, ২০২১
  • ১১৫ বার পঠিত

সাভারে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের থানাষ্ট্যান্ডে লাব্বাইক পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস একই দিকে যাওয়ার সময় একটি প্রাইভেটকারকে চাপ দিলে বাসের ঘষা লাগে প্রাইভেটকারটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এসময় প্রাইভেটকারের চালক উত্তেজিত হয়ে যাত্রীবাহী গাড়ীর চালক ও হেলপারের সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পরে।

পরিবহন শ্রমিকদের বাক বিতন্ডার ঘটনায় বিপাকে পড়েন প্রাইভেটকারে থাকা ধামরাই উপজেলার সূয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ধামরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজুর রহমান সোহরাব।

তুচ্ছ এ বিষয়টি সমাধানে শেষ পর্যন্ত সাভার মডেল থানা পর্যন্ত গড়ায়। বাস মালিক সমিতির প্রতিনিধি আসার পর বিকেল ৫ টার দিকে বিষয়টি সমাধান হয়।

ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের থানা স্ট্যান্ড এলাকায় শনিবার দুপুর তিনটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

একাধিক সূত্রে খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, জনপ্রতিনিধি হাফিজুর রহমানের গাড়িটিকে যাত্রীবাহী বাস সজোরে চাপ দিলে ঘর্ষণে প্রাইভেটকারটির একপাশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এসময় তার নিজের গাড়ীর চালক উত্তেজিত হয়ে নেমে বাসের চালককে চড় থাপর দিলে এ ঘটনার সৃষ্টি হয়।

শনিবার (২ অক্টোবর) রাতে মোবাইলে ধামরাই সূয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান সোহরাবের কাছে জানতে চাইলে তিনি সতেজবার্তা টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে বাসের চালক ক্ষতিপূরন দিয়ে দিবে বললে আমার রাগ হয় তাই ওকে ধমক দিয়ে বলছি তুই কতটাকা বেতন পাস সারাদিনে যে ক্ষতিপূরণ দিবি? বেপরোয়া গাড়ী না চালিয়ে সাবধানে গাড়ী চালানোর জন্য সতর্ক করতে থাকি। এ সময় ট্রাফিক সদস্যরা এসে প্রাইভেটকার ও বাসটি মহাসড়কের পাশে সাইড করার পর হঠাৎই এ তুচ্ছ ঘটনাটি বিশেষ ঘটনায় রুপ নেয়। বাস শ্রমিক দুজন ট্রাফিক পুলিশের উপস্থিতিতে হাফিজুর রহমানের দিকে দোষ চাপাতে থাকে। তাদের মারধর করছে বলে অভিযোগ করতে থাকে। উদ্দেশ্য মূলকভাবে ঘটনাটির দিক পরিবর্তন করা হচ্ছে বলে তিনি বুঝতে পারেন বলে দাবী করেন।

এদিকে সাভার মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শফিকুল ইসলাম থানারোডের কাছাকাছি থাকায় ঘটনাস্থলে এসে আমাকে আসামীর মতো পুলিশ ভ্যানে তুলে থানায় নিয়ে আসেন বলে অভিযোগ করেন চেয়ারম্যান হাফিজুর। কিছুক্ষণ পর ঐ বাস শ্রমিকটি হাতে সাজানো ব্যান্ডেজ বেধে আমাকে মিথ্যা অভিযোগে ফাঁসাতে থানায় আসে। তখনই আমি রেগে গিয়ে সেই শ্রমিকটির ব্যান্ডেজ খুলে দেই তখন ওসি সাহেব আমাকে হয়রানি করার সাজানো ঘটনাটি বুঝতে পারেন।

তিনি ধারনা করছেন, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে প্রতিপক্ষ আমার সুনাম ক্ষুন্ন করার অপচেষ্টা করেছেন।

প্রায় দুই ঘন্টা পর লাব্বাইক পরিবহনের মালিকপক্ষ থানায় আসলে আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করে দেন সাভার মডেল পুলিশ।

এর আগে এসআই শফিকুল ইসলাম জানিয়েছিলেন, ‘দুপুরে চেয়ারম্যানের প্রাইভেট কারের সঙ্গে বাসের অ্যাক্সিডেন্ট হয়েছিল। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে চেয়ারম্যান হকিস্টিক বের করে ওই বাসের বডিতে কয়েকটা বাড়ি দিয়েছেন। এ সময় একটা জানালায় আঘাত লেগে কাচ ভেঙে বাসের ভেতরে থাকা দুই-তিনজন সামান্য আহত হন। সেই অভিযোগেই তাকে থানায় নিয়ে এসেছিলাম। পরে উর্দ্ধতন কর্মকতারা যাচাই শেষে উভয়পক্ষের মধ্যে সমঝোতা করে দিয়েছে।

এবিষয়ে সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাঈনুল ইসলাম বলেন, ইউপি চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান যাতে জনরোষের স্বীকার না হয় সেজন্য কৌশলগত কারণে থানায় আনা হয়েছিল। সমস্যাটি সমাধান করে দেয়া হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও খবর...

ফেসবুকে আমরা

English version»